মুফতি সাইয়িদ মুহাম্মাদ আমীমুল ইহসান এর ফিকহুস সুনানি ওয়াল আসার তিন খন্ড একসাথে

মুফতি সাইয়িদ মুহাম্মাদ আমীমুল ইহসান এর ফিকহুস সুনানি ওয়াল আসার তিন খন্ড একসাথে

কালে কালে আমাদের এই উপমহাদেশে বহু রথী মহারথী জন্মগ্রহন করেছেন। যাদের অতুলনীয় সাধনা ও পরিশ্রমে আমরা এ অঞ্চলে ইসলামের সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারছি। জীবদ্দশায় তাদের লিখে যাওয়া এক একটা বই আমাদের শিক্ষা দেয় এমন অনেক কিছু যা আমাদের জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে কাজে লাগে। দ্বীনি কার্যক্রম পালন করতে গিয়ে এসব দাঈগন বহু বাধার সম্মুখীন হলেও তাঁরা তাদের এই কার্যক্রম চালিয়ে গেছেন। বই পড়ার মাধ্যমে আমরা আমাদের এই হিরোদের অনুভব করতে পারি। হ্যাঁ প্রিয় পাঠক আজকে আমি এরকম একজন দ্বীনি দাঈ, বাংলাদেশের জাতীয় মসজিদের ৩য় খতিব আল্লামা সাইয়্যিদ মুহাম্মদ আমীমুল ইহসানের লেখা ফিকহুস সুনানি ওয়াল আসার ধারাবাহিক সিরিজ নিয়ে ।

 

ফিকহুস সুনানি ওয়াল আসার-১ম খন্ড

বইটির মূল লেখক মুফতি সাইয়্যিদ মুহাম্মদ আমীমুল ইহসান। ভারতে জন্মগ্রহন করা এই লেখক উপমহাদেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ আলেম। তিনি বাংলাদেশের জাতীয় মসজিদের ইমাম ও খতিব ছিলেন। গ্রন্তটি তাঁর রচিত ধারাবাহিক গ্রন্থের প্রথম খন্ড। বাংলায় গ্রন্থটি অনুবাদ করেন বাংলাদেশের অন্যতম  ইসলামিক স্কলার ড খোন্দকার আব্দুল্লাহ জাহাঙ্গীর। কম সময়ের মধ্যে আমাদের অনেক মূল্যবান বই উপহার দিয়েছেন দ্বীনের এই বিশিষ্ট দাঈ। বইটির সম্পাদক ও হাদিসের তাখরিজ করেছেন হাদিস বিশারদ শাইখ ইমদাদুল হক। আসসুন্নাহ পাবলিকেশন থেকে বইটি ২০১৯সালে প্রকাশিত হয়। ৪৩২ পেইজের এই বইটির মূল্য ৩০০টাকা।

বইটি মূলত হানাফী ফিকহের হাদিস ভিত্তিক দলিলের সংকলন। এখানে সহীহ হাদিসকে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। প্রয়োজন হয় এমন হাদিসসমূহের সনদের উপর সংক্ষেপে আলোচনা করা হয়েছে। বাংলায় হাদিস চর্চা ও হানাফি ফিকহের দালিলিক চর্চায় এই গ্রন্থটি বিশেষ ভূমিকা রাখবে। হাদিস বিশারদ ও ইসলামিক স্কলারদের জন্যে বইটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। 

 

ফিকহুস সুনানি ওয়াল আসার-২য় খন্ড

মুফতি সাইয়্যিদ মুহাম্মদ আমীমুল ইহসান এর তিন খন্ডের ধারাবাহিক সিরিজের দ্বিতীয় খন্ড। এই খন্ডে মহাপবিত্র গ্রন্থ আল কুরআনের মর্যাদা বর্ণনা করা হয়েছে। এটিও আসসুন্নাহ পাবলিকেশন থেকে ২০১৯সালে প্রকাশিত হয় বাংলা ভাষায়। ৪৮০ পেইজের এই বইটির মূল্য ৩০০টাকা।

মহান রব্বুল আলামিন মানুষকে সৃষ্টি করেছেন দুর্বল করে। মানুষকে জ্ঞান দেয়া হলেও তা যত সামান্য। এ কথা আমরা কিন্তু ভুলেই বসে আছি। সামান্য জ্ঞানের অহংকারে আমরা স্রষ্টার দয়ার কথা ভুলে যাই। নাফরমানিতে লিপ্ত হই। বলা হয়েছে, মানুষকে সৃষ্টি করা হয়েছে দুর্বল করে আর তাদের দেয়া হয়েছে সামান্য জ্ঞান। আমরা চাইলেও আমাদের জ্ঞান দিয়ে ঐ মহাপরাক্রমশালী ও সর্বশক্তিমান রবের বিষয়ে বেশি কিছু জানতে পারব না। কারন আমাদের জ্ঞান সীমিত। বইটির এই খন্ডে আরো উল্লেখ করা হয়েছে, আল কুরআন হাজার বছরের গ্রন্থ হলেও আজ পর্যন্ত তা বিন্দুমাত্র পরিবর্তন হয়নি। এর কারন এই গ্রন্থের সংরক্ষন করেন মহান আল্লাহ তা আলা। বইটি পড়ার মাধ্যমে বিষয়গুলো ভালোভাবে অনুধাবন করা যায়।

 

ফিকহুস সুনানি ওয়াল আসার-৩য় খন্ড

ফিকহুস সুনানি ওয়াল আসার ধারাবাহিক গ্রন্থের শেষ খন্ড এটি। এই খন্ডটিও যথাক্রমে ২০১৯সালে আস সুন্নাহ পাবলিকেশন থেকে প্রকাশিত হয়। বইটির হাদিস তাখরিজ করেন মাওলানা ইমদাদুল হক। বঙ্গানুবাদ করেন ড খোন্দকার আব্দুল্লাহ জাহাঙ্গীর। 

আল কুরআন ভালোভাবে জানার জন্যে এর বেশি বেশি ব্যাখ্যা করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আল কুরআন মানুষের মুক্তি, বিজয় ও সফলতার জন্যে মহান রবের পক্ষ থেকে আসা সর্বশেষ আসমানি কিতাব। মানুষের সামগ্রিক জীবন ব্যবস্থা এই গ্রন্থে উল্লেখ করা হয়েছে। আমরা হয়ত সবটা জানতে পারবনা আমাদের এই সীমিত জ্ঞানে। কিন্তু যতটা আমরা জানতে পারি সেই চেষ্টা করতে হবে। আল কুরআন সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে এর মর্যাদা ও অসীম পরীসীমার ধারনা নিতে গ্রন্থটি পড়তে পারেন।  

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Main Menu